Menu Close
ফটোগ্রাফি photography স্মার্টফোন ফটোগ্রাফি
স্মার্টফোন ফটোগ্রাফি কিভাবে করবেন?

স্মার্টফোন ফটোগ্রাফিঃ

বর্তমান সময়ে স্মার্টফোন ব‌্যবহার করে না এমন মানুষ খুব কমই আছে। আবার অনেকে শখের বশে নিজের স্মার্টফোন দিয়ে অনেক সুন্দর সুন্দর ছবি তুলে রাখেন অর্থাৎ এককথায় স্মার্টফোন ফটোগ্রাফি করেন। যে ছবিগুলো হয়ত তাঁর মোবাইলের ওয়েলপেপার অথবা বিভিন্ন সোশ‌্যাল মিডিয়ার মধ‌্যে সীমাবদ্ধ থাকে।

তবে সে শখ করে তোলা ছবিগুলো থেকে যদি ভাল একটা ইনকাম হয় তাহলে মন্দ হয় না। তাই,আপনাদের সাথে আজ এমন ৩ টি ওয়েবসাইট শেয়ার করব, যে ওয়েবসাইট গুলোতে ছবি আপলোড করে একটা প‌্যাসিভ ইনকাম করতে পারেন। অন‌্য যে কোন কাজের পাশাপাশি। যে তিনটি ওয়েবসাইট আপনাদের সাথে শেয়ার করব মজার ব‌্যাপার হল সেগুলোতে কাজ করার জন‌্য আপনার ডি.এস.এল.আর ক‌্যামেরার প্রয়োজন হবে না। আপনার হাতে থাকা স্মার্টফোন দিয়ে কাজ চালিয়ে নিতে পারবেন।

কারণ, বর্তমানের স্মার্টফোন গুলোর ক‌্যামেরা দিয়ে তোলা ছবি ডি.এস.এল.আর ক‌্যামেরায় তোলা ছবির থেকে অনেক ভাল হয়। অনেকে আছেন পূর্বে অনেক ভাল ভাল ছবি তুলে রেখেছেন, সেগুলো এই তিনটি ওয়েবসাইটে আপলোড করে রাখতে পারেন। তো আপনিও চাইলে শুরু করে দিতে পারেন আপনার হাতে থাকা স্মার্টফোনটি দিয়ে স্মার্টফোন ফটোগ্রাফি। এবং ভাল একটা ইনকাম করে নিতে পারেন এখান থেকে। তো বেশী কথা না বলে মূল কথায় আসি।

ফটোগ্রাফি অর্থ‌্যাৎ ছবি বিক্রি করে ইনকাম করার জন‌্য আপনি অনেক ওয়েবসাইট পাবেন। তবে সবগুলোতে স্মার্টফোন অর্থ‌্যাৎ মোবাইল দিয়ে তোলা ছবি হয়ত অ‌্যাপ্রুভ না ও হতে পারে। তবে অ‌্যাডবি স্টোক, শাটারস্টোক, এবং লাভপিক এই ৩ টি ওয়েবসাইটে আপনি স্মার্টফোন ফটোগ্রাফি অর্থ‌্যাৎ মোবাইল দিয়ে তোলা ছবি ও অ‌্যাপ্রুভ করাতে পারবেন। আমি নিজেও মোবাইল দিয়ে তোলা ছবি অ‌্যাপ্রুভ করিয়েছি এই তিনটি ওয়েবসাইটে।

এই ওয়েবসাইট গুলোকে মাইক্রোস্টোক ওয়েবসাইট বলা হয়। মাইক্রোস্টোক অর্থ‌্যাৎ যে ওয়েবসাইট গুলোতে একজন ফটোগ্রাফার তাঁর তোলা ছবি এবং একজন ডিজাইনার তাঁর করা ডিজাইনসমূহ বিক্রি করার মাধ‌্যমে প‌্যাসিভ একটা ইনকাম করে নিতে পারে। অনেকে প‌্যাসিভ ইনকাম সম্পর্কে জানেন।

আবার অনেকে মনে করতে পারেন প‌্যাসিভ ইনকাম সেটা আবার কি, আমার সংজ্ঞা অনুযায়ী আপনার ছবি যদি একবার অ‌্যাপ্রুভ হয়ে যায় এই ওয়েবসাইটগুলোতে। তাহলে আপনি ঘুমিয়ে থাকলেও সেটা থেকে আপনার ইনকাম হতে থাকবে। আমার মতে এটাই প্যাসিভ ইনকাম। কারণ, এখানে আপনার বায়ার এর অর্ডার এর জন‌্য বসে থাকতে হয় না।  তো চলুন ৩ টি ওয়েবসাইট সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেই।

১) অ‌্যাডবি স্টোক

অ‌্যাডবি স্টোক হল মাইক্রোস্টোক ওয়েবসাইট গুলোর মধ‌্যে অন‌্যতম একটি ওয়েবসাইট। এখানে একটি ছবি অনেক বেশি দামে বিক্রি হয় বাকী ২ টি ওয়েবসাইটের তুলনায়। তবে আপনি যদি নতুন কন্ট্রিবিউটর হতে চান এবং এবং একাউন্ট খুলে প্রথম অবস্থায় ছবি, অথবা ডিজাইন যেটাই বলেন অ‌্যাডবি স্টোকে আপলোড করেন। রিভিউ করতে  প্রথম অবস্থায় অনেক দিন সময় নিবে। তবে ১ টা ছবি অ‌্যাপ্রুভ হয়ে গেলে পরবর্তীতে আর এতো সময় লাগে না। এখানে আপনি একটি ছবি অ‌্যাপ্রুভ করিয়ে কন্ট্রিবিউটর হতে পারবেন।

আরেকটা বিষয় হল এখানে আপনি ছোট ছোট কয়েক সেকেন্ড অথবা কয়েক মিনিটের ভিডিও আপলোড দিয়ে অ‌্যাপ্রুভ করিয়ে ইনকাম করতে পারবেন। আর সবচেয়ে মজার ব‌্যাপার হল মাত্র ২৫ ডলার হলেই পেপাল অথবা পেয়নিয়ার এর মাধ‌্যমে এখান থেকে পেমেন্ট নিতে পারবেন। যেটা অন‌্য ওয়েবসাইট গুলোর তুলনায় অনেক কম এমাউন্ট তাই আমি তালিকায় এই ওয়েবসাইটটিকে প্রথমে রেখেছি। তো আর দেরি না করে এখানে ক্লিক করে একাউন্ট করে নিতে পারেন। এবং ছবি,ভিডিও ক্লিপ এবং ডিজাইন যে কোন একটি অ‌্যাপ্রুভ করিয়ে ভাল একটা ইনকাম করতে পারেন অ‌্যাডবি স্টোক থেকে।

২) শাটারস্টোক

তালিকায় ২য় স্থানে শাটারস্টোক রাখার কারণ হলো, অ‌্যাডবি স্টোক এর তুলনায় এখানে ছবি অথবা ডিজাইন যেটাই বলেন না কেন অনেক কম দামে বিক্রি হয়। তবে এমন আগে ছিলনা আগে কেউ যদি কোন ছবি শাটারস্টোক থেকে কিনে নিত তাহলে ছবির মালিক একটা ছবি যতবার বিক্রি হত প্রতি বিক্রিতে ০.২৫ ডলার করে পেত। তবে নতুন নিয়ম আসার পর থেকে সবাই কম বেশী ০.১০ ডলার করে পাচ্ছে। তবে আপনার ছবি যদি কোন ক্রেতা শাটারস্টোক থেকে কমার্শিয়াল লাইসেন্সসহ কিনে নেয়। তাহলে, আপনি আপনার ছবি একবার বিক্রিতে  ৫০-১০০ ডলার ও পেতে পারেন।

অ‌্যাডবি স্টোকের তুলনায় শাটারস্টোকের রিভিউ পদ্ধতি অনেক দ্রুত। আপনি যদি কন্ট্রিবিউটর হতে চান এবং একাউন্ট খুলে প্রথম অবস্থায় একটি ছবি আপলোড করেন তাহলে ২৪ ঘন্টার মধ‌্যে রিভিউ করে জানিয়ে দিবে আপনার ছবি অ‌্যাপ্রুভ হয়েছে কিনা। এবং পরবর্তীতে আরো কম সময় নেয় রিভিউ করতে। আর এখানে অ‌্যাডবি স্টোক থেকে ১০ ডলার বেশি অর্থ‌্যাৎ ৩৫ ডলার হলেই পেপাল অথবা পেয়নিয়ার এর মাধ‌্যমে এখান থেকে পেমেন্ট নিতে পারবেন।

এক্ষেত্রে একটি মজার ব‌্যাপার হল আপনি আপনার পেপাল অথবা পেয়নিয়ার যে কোন একটি একাউন্ট শাটারস্টোকের সাথে কানেক্ট করে রাখলে তারা স্বয়ংক্রিয় ভাবে আপনার কানেক্ট করা পেপাল অথবা পেয়নিয়ার একাউন্টে ইনকাম করা ডলার পাঠিয়ে দিবে। তাই আপনাকে পেমেন্ট নিয়ে কোন চিন্তা করতে হবে না। তবে অ‌্যাডবি স্টোক এবং লাভপিকের তুলনায় শাটারস্টোকের পেমেন্ট পদ্ধতি আমার খুব ভাল লেগেছে।

এবং আমি সর্বপ্রথম শাটারস্টোক দিয়ে মাইক্রোস্টোক ফ্রিল‌্যান্সিং জগতে প্রবেশ করি। আরেকটা বিষয় হল এখানে আপনি ছোট ছোট কয়েক সেকেন্ড অথবা কয়েক মিনিটের ভিডিও আপলোড দিয়ে অ‌্যাপ্রুভ করিয়ে ইনকাম করতে পারেন। এখানে ছবি এবং ডিজাইন এর তুলনায় ভিডিও ক্লিপ অনেক বেশী দামে বিক্রি হয় প্রতি একবার বিক্রি তে আপনি ১০ ডলার থেকে ৫০ ডলার এবং তাঁর বেশিও পেতে পারেন। অ‌্যাডবি স্টোক এবং লাভপিক থেকে শাটারস্টোক অনেক জনপ্রিয় তাদের এই পদ্ধতির জন‌্য। তো আর দেরি না করে এখানে ক্লিক করে একাউন্ট করে নিতে পারেন। এবং ছবি,ভিডিও এবং ডিজাইন অ‌্যাপ্রুভ করিয়ে ভাল একটা ইনকাম করতে পারেন শাটারস্টোক থেকে।

৩) লাভপিক

তালিকায় ৩য় এবং সর্বশেষ যে মাইক্রোস্টোক ওয়েবসাইটটি নিয়ে আমি কথা বলব সেটি হচ্ছে লাভপিক। অ‌্যাডবি স্টোক ও শাটারস্টোক থেকে এটা অনেক আলাদা এখানেও আপনি একটি ছবি অ‌্যাপ্রুভ করিয়ে কন্ট্রিবিউটর হতে পারবেন। তবে মজার ব‌্যাপার হল লাভপিকে আপনার প্রথম একটা ছবি অথবা ডিজাইন বলেন যেটাই অ‌্যাপ্রুভ হোক না কেন তারা আপনাকে বোনাস হিসেবে ৫ ডলার দিবে। পরবর্তীতে যখন আপনার সর্বমোট ১০ টি ফাইল অ‌্যাপ্রুভ হবে তখন বোনাস হিসেবে আরও ১০ ডলার দিবে আপনাকে। তারপর আপনার একাউন্টে যখন সর্বমোট ৫০ টি ফাইল অ‌্যাপ্রুভ থাকবে তখন আপনাকে বোনাস হিসেবে তারা আরও ১২ ডলার দিবে।

৫০টি ছবি অথবা ডিজাইন যেটা বলেন না কেন, অ‌্যাপ্রুভ হওয়ার জন‌্য সর্বমোট ২৭ ডলার তারা আপনাকে ফাইল অ‌্যাপ্রুভাল বোনাস হিসেবে দিবে। জেনে রাখা ভাল, তাদের সর্বনিম্ন পেমেন্ট এমাউন্ট ৬০ ডলার। এবং পেপাল অথবা পেয়নিয়ার যে কোন একটি একাউন্ট ব‌্যবহার করে এখান থেকে আপনি পেমেন্ট নিতে পারবেন। যেহেতু এখানে মাত্র ৬০ ডলার হলে পেমেন্ট নিতে পারবেন। সেহেতু আপনি খুব সহজে এখান থেকে পেমেন্ট পাবেন। কারণ, ৫০ টি ফাইল অ‌্যাপ্রুভালের জন‌্য আপনি ২৭ ডলার তো বোনাস পাচ্ছেন।

আর একটা মজার ব‌্যাপার হল তাদের ট্রেন্ডিং ক‌্যাটাগরি অনুযায়ী ছবি অথবা ডিজাইন আপলোড করে অ‌্যাপ্রুভ হলে, প্রতি ‌‌অ‌্যাপ্রুভের জন‌্য অ‌্যাপ্রুভাল বোনাসের পাশাপাশি ০.১০ ডলার করে প্রতি অ‌্যাপ্রুভালে অতিরিক্ত বোনাস পাবেন। এবং ডিজাইনারদের জন‌্য সু-খবর হল টেমপ্লেট ক‌্যাটাগরির ডিজাইনের জন‌্য আপনারা প্রতি ১ হাজার ডাউনলোডের জন‌্য ৪০ ডলার পাবেন এবং ফটোগ্রাফাররা প্রতি ১ হাজার ডাউনলোডের জন‌্য ২০ ডলার পাবেন। তবে ফটোগ্রাফার এবং ডিজাইনারদের জন‌্য সুখবর হল তাদের ট্রেন্ডিং ক‌্যাটাগরি অনুযায়ী ফাইল অ‌্যাপ্রুভ করাতে পারলে আপনারা প্রতি ১০ টি ফাইল অ‌্যাপ্রুভালের জন‌্য ১ ডলার করে পাবেন।

অর্থ‌্যাৎ সর্বমোট যদি আপনি ৩৩০ ফাইল অ‌্যাপ্রুভ করাতে সক্ষম হলে। সেটা ছবি হোক বা ডিজাইন হোক তাহলে, আপনি বিনা ডাউনলোডে ৬০ ডলার ইনকাম করতে পারবেন। তবে অবশ‌্যই সেগুলো আপনার মন মত ফাইল দিলে হবে না। তাদের ট্রেন্ডিং ক‌্যাটাগরির হতে হবে। তো অ‌্যাডবি স্টোক এবং শাটারস্টোক থেকে অনেক বেশি কথা বলে ফেললাম লাভপিক নিয়ে। তো আর দেরি না করে এখানে ক্লিক করে একাউন্ট করে নিতে পারেন। এবং ছবি এবং ডিজাইন অ‌্যাপ্রুভ করিয়ে ভাল একটা ইনকাম করতে পারেন লাভপিক থেকে। নিচের ছবির সাথে কথাগুলো মিলিয়ে নিতে পারেন।

Lovepik

[ বিঃদ্রঃ শাটারস্টোকে শুধু আপনি ছবি, ভিডিও ক্লিপ এবং ডিজাইন (অবশ‌্যই ইলাস্ট্রেটরে সিসি ভার্সনে  করতে হবে এবং EPS 10 ফরম‌্যাটে Save দিতে হবে) এই ৩ ধরনের ফাইল আপলোড দিতে পারবেন। আর অ‌্যাডবি স্টোক,  এবং লাভপিক এই ওয়েবসাইটগুলোর ফাইল রিকোয়ারমেন্ট নিচে কিছু ছবির মাধ‌্যমে দেওয়া হল। ]

অ‌্যাডবি স্টোকঃ

 

AS 1
 
AS 2
 
AS 3
 

লাভপিকঃ

 

Lovepik 2
 

উপরে উল্লেখিত ওয়েবসাইটগুলোর মধ‌্যে যে ওয়েবসাইটটি  আপনার ভাল লাগবে, সে ওয়েবসাইটটি নিয়ে কাজ করে প‌্যাসিভ একটা ফ্রিল‌্যান্সিং ইনকাম করতে পারেন মাইক্রো স্টোক থেকে। পোষ্টের ভুলগুলো অবশ‌্যই ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন আশা করি। নতুন পোষ্ট পেতে অবশ‌্যই আমাদের ওয়েবসাইটিকে ফলো করে রাখবেন। পোষ্টটি সম্পর্কে আপনার মূল‌্যবান মতামত জানাতে ভুলবেন না।


নতুন নতুন তথ্য পেতে আমাদের সাথে যুক্ত থাকুন ফেসবুকটুইটার পেইজ-এ। পোষ্টের ভুলসমূহ ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন। পোষ্টটি সম্পর্কে আপনার মূল্যবান মতামত জানাতে এবং আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন না।

অন্যান্য পোস্টসমূহঃ

error: Content is protected !!