Menu Close

ইউ আর এল (URL):


ইউ আর এল (URL) এর পূর্ণরূপ হল ইউনিফর্ম রিসোর্স লোকেটার (Uniform Resource Locator)। ইউআরএল হচ্ছে একটি স্বতন্ত্র ঠিকানা যা প্রতিটি ওয়েবসাইট এর জন্য ভিন্ন হয়ে থাকে। অর্থাৎ ইউআরএল হল এমন একটি ঠিকানা যা ব্যবহার করে গ্রাহক ওয়েব সার্ভার এ রাখা তথ্য দেখতে পারে এবং ব্যবহার করতে পারে। যেমনঃ

https://www.example.com/index.html/

ইউআরএল এ কখনো স্পেস ( ) থাকে না তবে স্ল্যাশ ( / ) ব্যবহার হয়। সার্ভারে যদি আপনার কাঙ্ক্ষিত ঠিকানা না থাকে অর্থাৎ আপনি ভুল ঠিকানায় খোঁজ করেন তবে 404 ERROR দেখাবে।

ইউ আর এল এর অংশ সমূহঃ


ইউ আর এল তিনটি ভিন্ন ভিন্ন অংশের সমন্বয়ে গঠিত। এগুলো হল প্রোটোকল, ডোমেইন নাম এবং পথ

প্রথমতঃ ইউআরএল এর একদম প্রথমে থাকে প্রোটোকল। উদাহরনের http বা https হল প্রোটোকল। একে হাইপার টেক্সট ট্রান্সফার প্রোটোকল (Hyper Text Transfer protocol) বলে। যদি https থাকে তাহলে বুঝতে হবে ওয়েবসাইটির SSL সার্টিফিকেট আছে। অর্থাৎ ডেটাগুলো সিকিউর। এখানে ( s ) এর মানে হল Secured. এছাড়াও বিভিন্ন ধরনের প্রোটোকল রয়েছে যেমনঃ ftp, mailto ইত্যাদি।

দ্বিতীয়তঃ দ্বিতীয় অংটি হল ডোমেইন নাম। অর্থাৎ www.example.com হচ্ছে সাইটের ডোমেইন নাম। এখানে .com হচ্ছে টপ লেভেল ডোমেইন। example হল সেকেন্ড লেভেল ডোমেইন এবং www হল হোস্ট নাম। প্রতিটি সাইটের ডোমেইন নাম ভিন্ন হয়ে থাকে। টপ লেভেল ডোমেইন .com এর পরিবর্তে .net/.org/.info ইত্যাদি থাকতে পারে।

.com দ্বারা বোঝায় কমার্শিয়াল ওয়েবসাইট। .net দিয়ে বোঝায় নেটওয়ার্ক এবং .org দিয়ে বোঝায় অর্গানাইজেশন বা প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইট। এছাড়া দেশের নাম ভিত্তিক ডোমেইন নাম আছে। এসব ডোমেন নামের ক্ষেত্রে টপ লেভেল ডোমেইনের পরে দেশের নামের কিছু অংশ যুক্ত থাকে। যেমন বাংলাদেশের জন্য আছে .com.bd, .net.bd, .org.bd ইত্যাদি। এখানে bd দ্বারা বাংলাদেশ বুঝানো হয়েছে।

তৃতীয়তঃ অবশিষ্ট অংশটি অর্থাৎ index.html হল পথ (path)। পথ দ্বারা ওয়েব পাতা, ডোকুমেন্ট বা ফাইলের নাম বোঝায়।

ইতিহাসঃ


ইউনিফর্ম রিসোর্স লোকেটার (URL) ১৯৯৪ সালে আরএফসি ১৭৩৮-এ সংজ্ঞায়িত করা হয়েছিল এবং ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ওয়েব (www) এর উদ্ভাবক হলেন টিম বার্নার্স-লি।

ইউ আর এল যেভাবে কাজ করেঃ


আমরা জানি, একটি কম্পিউটার থেকে আরেকটি কম্পিউটারে যোগাযোগ স্থাপনের জন্য আইপি এড্রেস (IP Address) এর দরকার হয়। কিন্তু ডোমেইন নামে কোন আইপি এড্রেস থাকে না। ডোমেইন নামে থাকে সাধারণ অক্ষর। যা মেশিন বুঝতে পারে না। তাই ডোমেইন নামের সাথে আইপি এড্রেস যুক্ত করতে ডোমেইন নাম সার্ভার (DNS) ব্যবহার হয়ে থাকে। যার ফলে যখনই ডোমেইন নামটিটে ভ্রমণ করা হয় তা আইপি এড্রেসে পরিবর্তিত হয়ে আমাদেরকে নির্দিষ্ট ওয়েবসাইটে নিয়ে যায়।

তথ্যসূত্রঃ


১। অর্ডিনারি আইটি

২। উইকিপিডিয়া

অন্যান্য পোস্টসমূহঃ

error: Content is protected !!