Menu Close

ইফতারঃ


Iftarer dowa ইফতারের দোয়া, ইফতার

ইসলাম ধর্মা্নুসারীগণ রমজান মাসে আল্লাহর সন্তুষ্টি লাভের জন্য সারাদিন রোজা রেখে সূর্যাস্তের পর খাবার গ্রহণ করেন, একে ইফতার (আরবি: إفطار‎‎ ইফ্‌ত্বার্) বলে। আর যে খাবার গ্রহণ করা হয় তাকে বলা হয় ইফতারি। সাধারণত পরিবারের সকলে একসাথে একত্রে বসে ইফতার করা হয়। খেজুর খাবার মাধ্যমে ইফতার শুরু করা সুন্নত। বাংলাদেশে সাধারণত পানি খাবার মাধ্যমে ইফতার শুরু করা হয় তবে কিছু কিছু স্থানে ভেজা চাল মুখে দিয়েও ইফতার শুরু করা হয়।

বাংলাদেশে সাধারণত রমজান মাসে মাগরিবের আজানের আগে ইফতার বিক্রয় করা হয়। ইফতার বিক্রি করা হয় বিকাল থেকে মাগরিবের আজানের আগ পর্যন্ত। ইফতারের খাবার বিক্রির তালিকায় থাকে পিঁয়াজু, বেগুনি, হালিম, ছোলা, মুড়ি, জিলাপি, আলুর চপ ইত্যাদি।

এসব ইফতার ছাড়াও সাধারণত ঘরে প্রস্তুত করা হয় লেবু বা বিভিন্ন ফলের শরবত। চিড়া, কলা বা বিভিন্ন প্রকার ফলের সমাহার দেখা যায় ইফতারের আয়োজনে।

এছাড়া ইফতারের সময় বাংলার পথে পথে কিছু অস্থায়ী দোকান দেখতে পাওয়া যায়। যেখানে খুব কম খরচে এক প্লেট ইফতার পেয়ে যাবেন। যাদের বাড়ি পৌঁছাতে দেরি হয়ে যায় তারা এসব দোকানে ইফতার করতে পারেন। আবার বাংলাদেশের কোন কোন এলাকায় মসজিদে ইফতার এর ব্যবস্থা করা হয়। এবং পুরুষ মানুষেরা মসজিদে গিয়ে এলাকার সকলের সাথে ইফতার করে থাকে। এক্ষেত্রে প্রতিটি সচ্ছল পরিবার থেকে এক একদিন ইফতার দিয়ে মসজিদে ইফতারের ব্যবস্থা করা হয়। গরীব মানুষের যাতে ইফতার করতে কষ্ট না হয় তাই এমন ব্যবস্থা করা হয়।

সাধারণত পিঁয়াজু, বেগুনি, হালিম, ছোলা, মুড়ি, জিলাপি, আলুর চপ ইত্যাদি সামনে নিয়ে অপেক্ষা করতে থাকে রোজাদার মুমিনগণ এবং আজানের শব্দ শুনে তারা রোজা ভাঙ্গে।

আরো পড়েন

সেহেরির দোয়া, ইফতারের দোয়া, সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি

অন্যান্য পোস্টসমূহঃ

error: Content is protected !!